ঢাকা সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪ , ১ বৈশাখ ১৪৩১ আর্কাইভস ই পেপার

nogod
nogod
bkash
bkash
uttoron
uttoron
Rocket
Rocket
nogod
nogod
bkash
bkash

নরসিংদীতে জমে উঠেছে একুশে বইমেলা

দেশবার্তা

আমাদের বার্তা, নরসিংদী

প্রকাশিত: ০০:০০, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

সর্বশেষ

নরসিংদীতে জমে উঠেছে একুশে বইমেলা

নরসিংদীতে মহান শহীদ দিবস উপলক্ষে পৌর পার্কে ৯ দিনব্যাপী একুশে বইমেলা জমে উঠেছে। বইপ্রেমীদের আনাগোনায় মেলা প্রাঙ্গণ প্রাণ চঞ্চল হয়ে উঠেছে। কেউ বই কিনছেন, কেউ বই দেখছেন আবার কেউ সংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করছেন, সব মিলিয়ে মেলায় বেড়েছে ভিড়। সোমবার মেলা ঘুরে এমন চিত্রই দেখা গেছে।

সিসিটিভি ক্যামেরা দিয়ে মনিটরিংসহ প্রশাসনের কঠোর নজরদারিতে স্থানীয় লেখক-পাঠক ও দর্শনার্থীদের পদচারণায় জমজমাট বইমেলা প্রাঙ্গণ। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত দল বেঁধে আসছেন আর বই কিনছেন বইপ্রেমীরা। 
অনেকে দেখতে এসে ছবি ও সেলফি তুলছেন, কেউ বই পড়ছেন, মেলার অন্যতম আর্কষণ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করছেন।

মেলা শুরু থেকেই বেশ জমজমাট ছিলো, শিশু-কিশোরদের সরব উপস্থিতি মেলাকে করেছে আরো প্রাণবন্ত করেছে বলে জানিয়েছেন, বইমেলায় বিভিন্ন দোকানিরা।

মো. পিয়াল হাসান, আরিফ হাসান ও রাছেল মিয়াসহ তিন জন মিলে মেলায় বই বিক্রির জন্য দোকান মেলেছেন। 
জানতে চাইলে পিয়াল হাসান বলেন, অনেক বছর ধরে নরসিংদী এমন বড় করে বইমেলা হচ্ছিলো না। অনেক দিন এমন সন্দুর একটা বইমেলা হওয়ার কারণে প্রচুর পরিমাণ মানুষ আসছে মেলায়। 

পাঠকদের চাহিদা অনুযায়ী আমরা বই বিক্রি করছি। এবার বড়দের চেয়ে শিশুদের বই হয়েছে বেশি।
বিভিন্ন সাহিত্য বিষয়ক সংগঠনের ব্যানারে অনেকে বই বিক্রির জন্য দোকান নিয়েছেন এই মেলায়, প্রায় ১৫ থেকে ২০টি স্টল নিয়ে তরুণ-তরুণীরা বই বিক্রি করছেন। 

জানতে চাইলে সাটিরপাড়া বইঘর সংগঠনের সদস্য তরুণী জিনাত আরা জোয়ানা বলেন, প্রতি বছরই বইমেলায় আমরা বই বিক্রি করি, এবারের বইমেলা পৌর পার্কে হওয়ায় অনেক বড় হয়েছে। অনেক সমাগম হয়েছে। আমদের বিক্রি ভালো হয়েছে।

লেখক-ছাড়াকার এমদাদুল ইসলাম খোকন বলেন, মাতৃভাষা বাংলার ইতিহাস-ঐতিহ্যের স্মরণে প্রতিবছর ফেব্রুয়ারি মাসে হরেক রকমের নতুন বই প্রকাশের মধ্য দিয়ে চলে নরসিংদীর এই বইমেলা। জেলা প্রশাসনের আয়োজনের এবারের বইমেলা একটি বৃহৎ মেলায় পরিণত হয়েছে, প্রতিদিনই স্থানীয় লেখকদের বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হচ্ছে। 

জেলার ইতিহাস-ঐতিহ্য তুলে ধরা হচ্ছে লেখকদের বইগুলোয়। এই মেলায় নিজেদের পছন্দের বই ও প্রিয় লেখকের বই সংগ্রহ করতে আসেন লেখকরা।

এমন সুন্দর আয়োজন করার জন্য নরসিংদীর জেলা প্রশাসক ড. বদিউল আলমকে ধন্যবাদ জানিয়ে লেখক ও গবেষক ডক্টর মশিউর রহমান মৃধা বলেন, অতীতে নরসিংদীতে মেলা হয়েছে এতো সুন্দর আয়োজন হয়নি। এবার স্বতঃস্ফূর্তভাবে মানুষের অংশগ্রহণ আমাদের মুগ্ধ করেছে। মেলায় বিভিন্ন বয়সের মানুষ উচ্ছ্বাসিত।

তিনি বলেন, একটি বই হলো মানুষের পরম প্রিয় বন্ধু, বই মানুষকে কখনো ধোকা দেয় না, একজন মানুষ তার আর্থিক সামর্থ না থাকলেও বই পড়তে পারে, শারীরিক সামর্থ না নাকলেও বই পড়তে পারে, আমি মনে আজকের এই মেলার মধ্য দিয়ে নরসিংদী মানুষ একটি ভিন্নমাত্র পাবে। এবং আগামী দিনেও সরব-স্বতঃস্ফূর্ত হবে এবং আমাদের জ্ঞানের দার উন্মেচিত হবে।

মেলায় প্রতিদিনই চলছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান বিতর্ক প্রতিযোগিতা। ইতোমধ্যে অনুষ্ঠিত সেমিফাইনাল পর্যায়ে বিতর্ক প্রতিযোগিতায় বিজয়ী দলের মধ্যে রয়েছে নরসিংদী আইডিয়াল হাইস্কুল বিতার্কিক দল ও ব্রাহ্মন্দী গার্লস হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজ বিতার্কিক দল।

জনপ্রিয়