ঢাকা সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪ , ৪ আষাঢ় ১৪৩১ আর্কাইভস ই পেপার

nogod
nogod
bkash
bkash
uttoron
uttoron
Rocket
Rocket
nogod
nogod
bkash
bkash

ডি মারিয়ার গোলে ইকুয়েডরকে হারালো আর্জেন্টিনা

খেলা

প্রকাশিত: ১৩:০৮, ১০ জুন ২০২৪

আপডেট: ১৩:০৯, ১০ জুন ২০২৪

সর্বশেষ

ডি মারিয়ার গোলে ইকুয়েডরকে হারালো আর্জেন্টিনা

ডি মারিয়ার একমাত্র গোলে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে ইকুয়েডরকে ১-০ গোলে হারিয়েছে আর্জেন্টিনা।

সোমবার (১০ জুন) ভোরে শিকাগোর সোলজার ফিল্ড স্টেডিয়ামে ইকুয়েডরের বিপক্ষে খেলতে নেমে ১-০ গোলের জয় পায় আর্জেন্টিনা। দলের হয়ে জয়সূচক গোলটি করেন ডি মারিয়া। এই প্রীতি ম্যাচটি ছিল লিওনেল মেসির ফেরার ম্যাচও। কারণ এল সালভাদর ও কোস্টারিকার বিপক্ষে সর্বশেষ দুটি প্রীতি ম্যাচে চোটের ফলে খেলা হয়নি তার।

এই ম্যাচে যে খেলবেন মেসি, সেই নিশ্চয়তা আগেই দিয়েছিলেন কোচ লিওনেল স্কালোনি। যদিও ম্যাচের শুরুতে নামানো হয়নি মেসিকে। ৪-৩-৩ ক্ল্যাসিক ফরমেশনে ম্যাচ শুরু করে আর্জেন্টিনা। ম্যাচের দশম মিনিটে একটি সুযোগও তৈরি করে আর্জেন্টিনা। যদিও সেই প্রচেষ্টায় সাফল্য মেলেনি। এরপর ম্যাচের ১৯ ও ২১ মিনিটে পরপর দু’টি সুযোগ তৈরি করেছিল আর্জেন্টিনা, তবে সেগুলো জালের দেখা পায়নি।

একের পর এক আক্রমণের পর ম্যাচের ৪০তম মিনিটে সাফল্য পায় আর্জেন্টিনা। রদ্রিগো দি পলের কাছ থেকে বল পেয়ে ক্রিস্টিয়ান রোমেরো বাড়িয়ে দেন ডি মারিয়াকে। দুর্দান্ত ফিনিশিংয়ে বল জালে পাঠিয়ে আর্জেন্টিনাকে এগিয়ে নেন তিনি। ম্যাচের ৪৪তম মিনিটে দ্বিতীয় গোলটিও প্রায় পেয়ে গিয়েছিলেন এ আর্জেন্টাইন তারকা। তবে ফ্রি-কিকে তার শট অল্পের জন্য জালের ঠিকানা খুঁজে নিতে ব্যর্থ হয়। এরপর ১-০ গোলে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় আলবিসেলেস্তারা। প্রথমার্ধের মতো দ্বিতীয়ার্ধেও আধিপত্য ধরে রাখে আর্জেন্টিনা। 

গোল না পেলেও দ্বিতীয়ার্ধের ৫৬ মিনিটে উল্লাসে মাতেন আর্জেন্টাইন সমর্থকরা। কারণ, মাঠে নামেন সবচেয়ে বড় তারকা লিওনেল মেসি। হর্ষধ্বনির মধ্যেই ডি মারিয়ার বদলি হিসেবে মাঠে নামেন মেসি। মাঠে নেমেই মেসি চেষ্টা করেন নিজের ছাপ রাখতে। যদিও গোলের দেখা পাননি আর্জেন্টাইন তারকা।

মাঝে ইকুয়েডর অবশ্য চেষ্টা করে ম্যাচে সমতা ফেরাতে। তবে তাদের সেসব আক্রমণ আর্জেন্টিনার রক্ষণভাগকে ফাঁকি দেওয়ার জন্য যথেষ্ট ছিল না। শেষ পর্যন্ত এক গোলের লিড ধরে রেখে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে স্কালোনির শিষ্যরা। আর্জেন্টিনা পরের ম্যাচ খেলবে আগামী ১৫ জুন গুয়েতেমালার বিপক্ষে।

জনপ্রিয়