ঢাকা মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪ , ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ আর্কাইভস ই পেপার

nogod
nogod
bkash
bkash
uttoron
uttoron
Rocket
Rocket
nogod
nogod
bkash
bkash

আকারে বাড়ছে ঈদ-অর্থনীতি

অর্থনীতি

বাণিজ্য ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৭:৪৯, ৮ এপ্রিল ২০২৪

সর্বশেষ

আকারে বাড়ছে ঈদ-অর্থনীতি

ঈদ অর্থনীতির আকার উচ্চ মূল্যস্ফীতিতেও বড় হচ্ছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির (বিএসওএ) জরিপে দেখা গেছে, ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে ব্যবসা হয় প্রায় ১ লাখ ৭০ হাজার কোটি টাকার। এর মধ্যে পোশাক খাতে খরচ হয় ৩৭ হাজার ৪০০ কোটি টাকা। নামাজের টুপি থেকে শুরু করে দুধ, চিনি ও আনুষঙ্গিক প্রায় সবকিছুর পেছনেও অনেক টাকা খরচ হয়।

ব্যবসায়ী ও অর্থনীতিবিদদের মতে, গত কয়েক দশকে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক চিত্র বদলেছে। একসময় ঈদের অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড সীমাবদ্ধ ছিলো পোশাক, জুতা, অলংকার ও সেমাই-চিনির মধ্যে। এখন তা গৃহস্থালি থেকে পৌঁছেছে প্রসাধনীতে। ঈদ ঘিরে বেড়েছে দেশ-বিদেশে ভ্রমণের প্রবণতাও। ফলে প্রতি বছরের মতো এবারও ঈদ ঘিরে অর্থপ্রবাহ বাড়ছে।

বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির তথ্যমতে, ঈদে সারাদেশে ২৫ লাখ দোকানে কেনাবেচা হবে। মুদি থেকে শুরু করে নানা পদের দোকানে বছরের অন্য সময় গড়ে দিনে ৩ হাজার কোটি টাকার পণ্য বিক্রি হলেও, এখন তা বেড়ে তিন গুণ হয়েছে।

দেশের ঈদ অর্থনীতি নিয়ে সরকারিভাবে কোনো গবেষণা নেই। তবে বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির সমীক্ষা বলছে, ঈদুল ফিতর কেন্দ্র করে ১ লাখ ৬৫ হাজার থেকে ১ লাখ ৭০ হাজার কোটি টাকা লেনদেন হয়। সমিতির তথ্যমতে, ২০২৩ খ্রিষ্টাব্দে রোজা ও ঈদ ঘিরে সম্ভাব্য অতিরিক্ত অর্থপ্রবাহ ছিলো প্রায় ১ লাখ ৮৭ হাজার ৬৬০ কোটি টাকা। 

জনপ্রিয়