ঢাকা সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪ , ৬ শ্রাবণ ১৪৩১ আর্কাইভস ই পেপার

nogod
nogod
bkash
bkash
uttoron
uttoron
Rocket
Rocket
nogod
nogod
bkash
bkash

শিপমেন্ট নিয়ে বেকায়দায় রপ্তানিকারকরা

অর্থনীতি

বাণিজ্য ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৮:১০, ১৬ নভেম্বর ২০২৩

সর্বশেষ

শিপমেন্ট নিয়ে বেকায়দায় রপ্তানিকারকরা

বিএনপি-জামায়াতের ডাকা দফায় দফায় অবরোধের কারণে আমদানি-রপ্তানি পণ্য পরিবহনে অচলাবস্থা তৈরি হয়েছে। শিল্পের জন্য আমদানিকৃত কাঁচামাল সময়মতো কারখানায় পৌঁছাতে না পারায় তৈরি পোশাকসহ সামগ্রিকভাবে ব্যাহত হচ্ছে দেশের শিল্পখাত। 

এতে ক্রেতার বেধে দেয়া সময়ে পণ্য রপ্তানি নিয়ে চরম বেকায়দায় পড়েছেন রপ্তানিকারকরা। সৃষ্টি হয়েছে শিপমেন্ট বিলম্বসহ নানান জটিলতা। 

শুধু তাই নয়, অবরোধের প্রভাবে ঢাকা-চট্টগ্রামসহ দেশের সকল রুটে পণ্য পরিবহন ভাড়া বেড়ে গেছে দ্বিগুণের বেশি। এতে চরম বেকায়দায় পড়েছেন ব্যবসায়ীরা। ফলে চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে কমে যাচ্ছে তৈরি পোশাকের অর্ডার। 
বিকেএমইএ'র এক্সিকিউটিভ প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ হাতেম গণমাধ্যমকে বলেন, টি-শার্টের একটি চালান ১৫ নভেম্বর সমুদ্র পথে জার্মানিতে শিপমেন্ট হওয়ার কথা ছিলো। চলমান অবরোধের কারণে সময়মতো কারখানায় ফ্রেব্রিক পৌঁছানো যায়নি। একইসঙ্গে ছিলো গ্যাসের সংকটও। 

‘সময়মতো ফ্রেব্রিক না পাওয়ায় এখনো সব পণ্য প্রস্তুত করা সম্ভব হয়নি। ক্রেতার বেধে দেওয়া টাইমলাইন অনুযায়ী এখন বাধ্য হয়ে এয়ার শিপমেন্ট করা ছাড়া উপায় নেই,’ বলেন তিনি।

চট্টগ্রাম সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের পোর্ট অ্যাফেয়ার্স সেক্রেটারি মো. লিয়াকত আলী হাওলাদার বলেন, অবরোধ কর্মসূচির কারণে পরিবহন সংকট রয়েছে। এ কারণে এখন আমদানিকারকদের চট্টগ্রাম বন্দর থেকে ঢাকায় পণ্য পরিবহনে ১৫ হাজার টাকার জায়গায় প্রায় দ্বিগুণ ভাড়া গুনতে হচ্ছে। 

বাংলাদেশ ট্রাক শ্রমিক ফেডারেশন কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট মাঈন উদ্দিন বলেন, ‘পণ্য পরিবহনের সময় চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে ২টি এবং কুমিল্লায় ২টি প্রাইম মুভার আগুনে পুড়িয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা। এছাড়া, প্রতিদিনই গাড়ি পোড়ানো হচ্ছে। সড়কে গাড়ি চালানো নিয়ে চালকরা আতঙ্কিত। এমন পরিস্থিতিতে ভাড়া আগের তুলানায় বেড়েছে।’

জনপ্রিয়